মাগরিবের আযানের পরে পরেই, মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত নামায পড়া সুন্নাতও নয়, মুস্তাহাবও নয়*।

*মাগরিবের আযানের পরে পরেই, মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত নামায পড়া সুন্নাতও নয়, মুস্তাহাবও নয়*।
ইদানিং কালে কোনো কোনো এলাকায় দেখা যাচ্ছে যে, কিছু গায়ের মুকাল্লিদ সালাফী ফারাযী লোক মাগরিবের আযানের পরে পরেই মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত করে নামায পড়ছে।
 বিষয়টি জানার পর কিতাব পত্র দেখলাম। তাতে যেটা পেলাম সেটা হলো এই যে,ঐ সময় দুই রাকাআত নামায পড়া সুন্নতও নয়। মুস্তাহাবও নয়।

তার কয়েকটি প্রমাণ নিচে👇🏻👇🏻 দেওয়া হলো।

(১)👉🏻 শারহে মুসলিম নববী,৬খঃ ১২৩ পৃষ্ঠায় আছে যে,
لم یستحبھما ابوبکر وعمر و عثمان و علی وآخرون من الصحابہ ومالک و اکثر الفقہاء.
অর্থাৎ - ইসলামের মহান চার খলিফা,অন্যন্য সাহাবায়ে কেরাম,ইমাম মালেক এবং অধিকাংশ ফাক্বীহগন ( রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম)
এটাকে মুস্তাহাব মানেননি।

(২)👉🏻 সুনানে কুবরা বায়হাক্বী ২য় খঃ ৪৭৬ পৃষ্ঠায় আছে যে,
عن منصور عن ابراہیم قال لم یصل ابوبکر وعمر ولا عثمان رضی اللہ تعالیٰ عنھم قبل المغرب رکعتین.
অর্থাৎ- মানসুর হতে বর্ণিত আছে তিনি ইবরাহিম হতে বর্ণনা করেছেন যে,হাযরাত আবু বাকার, উমার ও উসমান রাদিয়াল্লাহু তায়ালা আনহুম কেহই মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত নামায পড়েননি।

(৩)👉🏻 সুনানে আবু দাউদ ২য়  খঃ ২৬ পৃষ্ঠায় আছে যে,
عن طاؤس قال س.. ابن عمر  عن الرکعتین قبل المغرب فقال ما رأیت احدا علی عھد رسول اللہ صلی اللہ تعالیٰ علیہ وسلم یصلیھا.
অর্থাৎ- ত্বাউস হতে বর্ণিত আছে তিনি বলেন ইবনে উমরকে জিজ্ঞাসা করা হলো মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত নামায সম্পর্কে।
অতঃপর তিনি বললেন, আমি হুযুর আলাইহিস সালামের যুগে কাউকে পড়তে দেখিনি।

(৪)👉🏻মুসান্নাফে ইবনে আবী শায়বা ২খঃ ৩৫৭ পৃষ্ঠায় আছে যে,
عن سعیدبن مسیب قال ما رأیت فقیھا یصلی قبل المغرب الا سعدبن أبی وقاص.
অর্থাৎ- হাযরাত সাঈদ ইবনে মুসাইয়িব বলেন যে, হাযরাত সায়াদ ইবনে আবী ওয়াক্কাস ছাড়া এই নামায আর কোনো ফাক্বীকে পড়তে দেখিনি।

অবশ্য পরবর্তীতে তিনাকেও নিষেধ করে দেওয়া হয়েছিল।
দেখুন- শারাহ মুশকিলুল আসার ২য় খঃ ১৭৬ পৃষ্ঠা।

(৫)👉🏻 সুনানে দারে কুতনী ১ম খঃ ২৬৪ পৃষ্ঠায় আছে যে,
আল্লার রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন,
ان عند کل اذانین رکعتین ما خلا صلاہ المغرب.
অর্থাৎ- আযান ও একামাতের মাঝে সুন্নাত - মুস্তাহাব নামায আছে, তবে মাগরিব বাদে।

বিঃ দ্রঃ- এই👆 হাদীস দ্বারা ঐ  হাদীসটি মানসূখ (রহিত) হয়ে গেছে, যে হাদিসে বলা হয়েছে যে, প্রত্যেক আযান ও একামাতের মাঝে নামায আছে।

উল্লেখিত👆আলোচনা হতে পরিস্কার হয়ে গেল যে, মাগরিবের আযানের পরে পরেই মাগরিবের ফরয নামাযের পূর্বে দুই রাকয়াত নামায পড়া সুন্নাতও নয়, মুস্তাহাবও নয়।

 আরো বিস্তারিত জানতে হলে দেখুন👉🏻 সাঈদুল হক ফি তাখরীজে জাআল হক,২য় খঃ ১০০৬ পৃষ্ঠা।

ইতি- ২৬/০৬/২০২০
আরয👏👏গুযার
দুওয়া প্রার্থী
মোঃ আলিমুদ্দিন আখতারী রেজবী মাযহারী জঙ্গীপুরী।

Post a Comment

0 Comments